শিরোনাম

প্রচ্ছদ জেলা সংবাদ, শিরোনাম, স্লাইডার

আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নতুন হাওয়া

অনলাইন ডেস্ক | শনিবার, ১৪ জানুয়ারি ২০১৭ | পড়া হয়েছে 1042 বার

আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নতুন হাওয়া

জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শফিকুল আলম এমএসসি-কে ঘিরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরকারদলীয় রাজনীতিতে বইছে নতুন হাওয়া। নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে শফিকুলের প্রতিদ্বন্দ্বিতার সময়ে নীরবে সমর্থন যুগিয়ে যাওয়া নেতাদের অনেকেই এখন সরব। আড়াল থেকে প্রকাশ্যে এসেছেন তারা। দেখা করছেন তার সঙ্গে। ফুলের তোড়া হাতে তুলে দিয়ে জানাচ্ছেন শুভেচ্ছা। এদিকে ঢাকায় শপথ নিয়ে পথে পথে ফুলেল শুভেচ্ছা আর ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে বৃহস্পতিবার বাড়ি ফিরেন জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এলে তাকে সংবর্ধিত করেন শতশত মানুষ। আশুগঞ্জ থেকে শতাধিক গাড়ির বহর নিয়ে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌঁছান। তার গাড়ি বহরের আগে কয়েকশ’ মোটরসাইকেলের শোভাযাত্রা ছিলো। ছিলো হাতিও। বিভিন্নস্থানে তার গাড়ি থামিয়ে সমর্থকরা ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। একটি খোলা গাড়িতে দাঁড়িয়ে তিনিও দু-হাত উড়িয়ে সমর্থকদের ভালোবাসার জবাব দেন। এ সময় তার সঙ্গে গাড়িতে ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমানুল হক সেন্টু, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি তাজ মো. ইয়াছিন। ওইদিন দুপুরে তার গাড়ি বহর আশুগঞ্জ পৌঁছলে আশুগঞ্জের বাসিন্দা ঢাকার ধানমন্ডি থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি কামাল আহমেদ তাকে বরণ করেন। এর আগে ঢাক-ঢোল-বাজনা নিয়ে শফিকুলকে বরণ করতে জেলার বিভিন্নস্থান থেকে তার শ’শ’ সমর্থক আশুগঞ্জে জড়ো হন। তার গাড়ি বহর আশুগঞ্জ থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আসার পথে মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। শফিকুল আলমের গাড়ি বহর শহরের বিভিন্ন সড়কও প্রদক্ষিণ করে। দলের সাধারণ নেতাকর্মীদের অনেকে তাকে শুভেচ্ছা জানাতে এদিন উপস্থিত ছিলেন। সরাইল, আশুগঞ্জ, নবীনগরসহ জেলার বিভিন্নস্থান থেকে আসেন দলের এই সাধারণ নেতাকর্মীরা। শহরে পৌঁছার পর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সাবেক মেয়র মো. হেলাল উদ্দিন তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। অবশ্য এরআগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যগণ তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার কিছু সময় পরই তাকে শুভেচ্ছা জানান সদর সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। ফুলেল শুভেচ্ছা জানান নাসিরনগর থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সায়েদুল হক, কসবা-আখাউড়া থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক,এ আসনের সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট মো. শাহআলম, নবীনগর থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ফয়জুর রহমান বাদল, বাঞ্ছারামপুর থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য সাবেক মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অবসরপ্রাপ্ত এ বি এম তাজুল ইসলাম, সরাইল থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা। নির্বাচিত হওয়ার পর জেলা আওয়ামী লীগ থেকেও শুভেচ্ছা জানানো হয় তাকে। শুভেচ্ছা জানান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার। শফিকুলকে নিয়েই এখন সরব জেলার সরকার দলের রাজনীতি। এ আলোচনাতেই মুখর নানা আসর। দলে নানাভাবে কোণঠাসা নেতারা তাকে ঘিরেই চাঙা হয়ে উঠেছেন। মিলছে নতুন মেরূকরণের আভাস ইঙ্গিত। শফিকুল নিজেও ছিলেন কোণঠাসাদের দলে। জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলনে সহ-সভাপতির পদ হারান তিনি। সদ্য হওয়া জেলা পরিষদ নির্বাচনে শফিকুল আলম দলীয় প্রার্থী অ্যাডভোকেট সৈয়দ এ কে এমদাদুল বারীকে পরাজিত করেন। এরপরই হাওয়া বদলাতে শুরু করে।

সুত্র-মানবজমিন


Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আমরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সন্তান

০৯ মার্চ ২০১৭ | 8112 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০