শিরোনাম

প্রচ্ছদ খেলাধুলা, শিরোনাম, স্লাইডার

এটা আমার জন্য বড় শিক্ষার হবে : তামিম

অনলাইন ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ | পড়া হয়েছে 1290 বার

এটা আমার জন্য বড় শিক্ষার হবে : তামিম

ক্রাইস্টচার্চকে বলা হয় ভূমিকম্পের শহর। চলতি সফরে বাংলাদেশ এই শহরেই প্রথম ম্যাচটি খেলে (তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে)। এরপর নেলসন, নেপিয়ার, মাউন্ট মঙ্গানুই, ওয়েল্টিংটন হয়ে সেই কম্পনের শহরে ফের বাংলাদেশ। কিন্তু সফরের সর্বশেষ ম্যাচ- দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশ যেন এক বিধ্বস্ত দলের নাম। এখনও কোনো জয় নেই; সেই আক্ষেপ ছাপিয়ে এখন বড় হতাশা- ইনজুরি নামক ‘সিডর’।
শুক্রবার যেমন টেস্ট দলের অন্যতম তিন খেলোয়াড়কে পাওয়া যাচ্ছে না। চোটের কারণে অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম, ওপেনার ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক খেলতে পারবেন না ম্যাচে। মুশফিকের পরিবর্তে ম্যাচে তাই নেতৃত্বে দিতে দেখা যাবে তামিম ইকবালকে।
ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ কিছু দিন ধরেই নিয়মিত অধিনায়কত্ব করে আসছেন বাংলাদেশের ব্যাটিং স্তম্ভ তামিম ইকবাল। সর্বশেষ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন দলের (আবাহনী) অধিনায়কও তিনি। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সে অভিজ্ঞতা একেবারেই নেই। যদিও দীর্ঘ ২ বছর ধরে তিনি টেস্টে মুশফিকের ডেপুটি হিসেবে রয়েছেন। এর আগেও ২০১১ সালে সাকিব আল হাসানের ডেপুটিও ছিলেন তামিম।
আগামীকাল ক্রাইস্টচার্চে টেস্টের মতো অভিজাত ক্রিকেট জগতে ‘অধিনায়ক’ হিসেবে অভিষেক হবে তামিমের। অনিয়মিত হলেও হঠাৎ পাওয়া বড় এই দায়িত্বকে সুযোগ হিসেবে মনে করছেন তামিম, ‘অবশ্যই এটা একটা সুযোগ নিজেকে মেলে ধরার। এক দিন না একদিন অধিনায়ক হবার স্বপ্ন তো দেখিই। কাজেই আমার মনে হয় এই ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের দায়িত্ব পালনের সময়টা আমার জন্য বড় শিক্ষার হবে।’
ওয়েলিংটনে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ের সময় মুশফিকুর রহীম আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়ার পর পঞ্চম দিন ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তামিমই। কাল যখন অধিনায়ক হিসেবে মাঠে নামছেন তখন সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন ওঠলো, আপনার অধিনায়কত্বের দর্শন কি? তামিম উত্তরে বললেন, ‘বলতে পারেন আমার ব্যাটিংয়ের মতোই। আমি আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলতে পছন্দ করি। অামার মানসিকতাই আক্রমণাত্মক। অধিনায়কত্বে দেখবেন যতটা সম্ভব পজিটিভ থাকতে চাই।’
তবে হঠাৎ অধিনায়ত্বের চেয়ে আগে জেনে নিয়মিত অধিনায়কত্বই যে দলের জন্য বেশি উপকারী সেটিও মনে করিয়ে দিয়েছেন তামিম, ‘ম্যাচের মাঝখানে অধিনায়কত্ব করার চেয়ে আগে জেনে ম্যাচের আগে ম্যাচ কন্ডিশনে নেতৃত্ব দেয়া তুলনামূলক ভালো। এতে নিজের ও দলের লক্ষ্য ও পরিকল্পনা স্থির করার সময় মেলে। আমি আমার মতো করে কিছু করার সুযোগ ও সময় পাবো।’


Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

৩০০ পেরিয়েও জিততে পারেনি ধোনিরা

১১ জানুয়ারি ২০১৭ | 1579 বার

বাংলাদেশের ঐতিহাসিক টেস্ট জয়

৩০ অক্টোবর ২০১৬ | 1343 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০