শিরোনাম

প্রচ্ছদ জাতীয়, নবীনগরের খবর, শিরোনাম, স্লাইডার

নবীনগরের গ্যাস কূপ থেকে পরিক্ষামুলক উত্তোলন শুরু

এস এ রুবেল | বুধবার, ০৪ মার্চ ২০২০ | পড়া হয়েছে 768 বার

নবীনগরের গ্যাস কূপ থেকে পরিক্ষামুলক উত্তোলন শুরু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে গ্যাস কূপের সন্ধান মিলেছে এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ ‘নবীনগর টুয়েন্টি ফোর  ডটকম’ সাইটে প্রকাশিত হওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে সংবাদটি ভাইরালে রুপ নেয়। নবীনগরবাসীর কাছে এ প্রাপ্তিটুকু মুজিব বর্ষের উপহার হিসেবে আখ্যায়িত করছেন অনেকে।

আজ দুপুরে নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের হাজীপুর এলাকার নতুন এ গ্যাস কুপের স্থান পরিদর্শন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির।  এসময় ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সাদেক সহ উপজেলা প্রশাসনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিল।


রাষ্ট্রীয় তেল গ্যাস অনুসন্ধান ও উত্তোলনকারী সংস্থা বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রডাকশন কোম্পানি লিমিটেড (বাপেক্স) দীর্ঘ আটমাস অনুসন্ধান চালিয়ে  নিশ্চিত হয়েছেন  এখান থেকে গড়ে প্রতিদিন ১২ থেকে ১৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন সম্ভব। যাকিনা সারা দেশে সরবরাহের মাধ্যমে চলতি সময়ে গ্যাসের ঘাটতি রোধ করবে। গতকাল মঙ্গলবার রাত ৭টা থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কূপ থেকে পরীক্ষামূলকভাবে গ্যাস উত্তোলন শুরু করেন। পরীক্ষামূলকভাবে গ্যাস উত্তোলন পরবর্তী ৩৬ ঘন্টা পর্যন্ত চলবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ঠরা।

নতুন গ্যাস ক্ষেত্র আবিস্কারের পর থেকে খুশির এ খবরে গোটা নবীনগরের মানুষজনের মনে আনন্দের ঢেউ খেলছে। তারা মনে করছেন ‘গ্যাস চাই গ্যাস চাই’ দীর্ঘদিনের এ দাবী বাস্তবায়ন হওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।
ইতোমধ্যে নিজেদের উঠানে পাওয়া গ্যাসের সুবিধা নিতে চান নবীনগরবাসী। এ দাবীর প্রেক্ষিতে ফেসবুকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুল এমপির দৃষ্টি কারেন অনেকে। একই সাথে নবীনগরের গণমাধ্যমকর্মীদের সবাইকে এ বিষয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিতেও দেখা গেছে। কালের কন্ঠের নবীনগর প্রতিনিধি গৌরাঙ্গ দেবনাথ পোস্টে উল্যেখ করেন, নবীনগরবাসির দীর্ঘদিনের দাবী ‘নবীনগরে গ্যাস চাই।’ এখন সেই গ্যাস আমাদের দুয়ারে এসে কড়া নাড়ছে। শুধু দরকার মাননীয় এমপিসহ সংশ্লিষ্টদের আন্তরিক তৎপরতা!

মোস্তাক আহমেদ উজ্জল যুগান্তর পত্রিকার নবীনগর প্রতিনিধি। তিনি তার ওয়ালে আজ এ বিষয়ে পোস্টে উল্যেখ করেন, মজিব শতবর্ষে নবীনগর তথা দেশবাসীর উপহার। আমাদের নবীনগরের সম্পদ,আমাদেরই রক্ষা করতে হবে। নবীনগর গ্যাস ফিল্ড নাম করন চাই।
তিনি এই গ্যাস ফিল্ডের নাম যেন নবীনগর গ্যাস ফিল্ড করা হয় এই দাবীতে নবীনগর বাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার অনুপ্রেরণা দেন।

মোহনা টিভির নবীনগর প্রতিনিধি সাইদুল আলম একই বিষয়ে পোস্টে উল্যেখ করেন, নিজেদের দাবী আগে আদায় করতে হবে। নবীনগরের গ্যাস কুপ নবীনগরের সাথে নামকরণ করতে হবে। এজন্য সকল সাংবাদিকদের এ বিষয়ে সোচ্চার হবার পরামর্শ দেন তিনি।

 

শুধুমাত্র সাংবাদিকদের ওয়ালে নয় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ আজ সারাদিন নিজেদের দাবী আদায় নিয়ে দিনভর লেখালেখি করেছেন।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, নবীনগরের লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের হাজীপুর গ্রামে অবস্থিত নতুন এ কূপটি শ্রীকাইল গ্যাস ফিল্ডের অন্তর্ভুক্ত । শ্রীকাইল পূর্ব-১ নামে ওই কূপ থেকে প্রতিদিন ১২ থেকে ১৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন সম্ভব হবে। প্রসেস প্লান্টের মাধ্যমে শোধন করে এ গ্যাস জাতীয় গ্যাস ফিল্ডে সরবরাহ করা হবে। তবে এ ক্ষেত্রে কিছু সময় লাগবে। কেননা, কুমিল্লা জেলার অন্তর্গত শ্রীকাইল গ্যাস ক্ষেত্রটি ওই কূপ থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে।

নতুন এ কূপে গ্যাস পাওয়ায় নবীগরের মানুষের মাঝে ব্যাপক আনন্দ বিরাজ করছে। তাঁরা মনে করছে, এটি মুজিববর্ষে প্রকৃতির সেরা উপহার। ওই কূপ থেকে পাওয়া গ্যাস নবীনগরে সরবরাহের আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন এলাকার মানুষ। শ্রীকাইল পূর্ব-১ গ্যাস কূপটি খননে ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৭০ কোটি টাকা।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান ঘটনাস্থলে

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ২০১৭ ও ২০১৮ সালে ওই এলাকায় ত্রি-মাত্রিক ভূতাত্ত্বিক জরিপ পরিচালনরা করে গ্যাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। ২০১৯ সালের ২৮ অক্টোবর গ্যাসের অস্তিত্ব পেয়ে সেখানে খনন কাজ শুরু করে বাপেক্স। খনন কাজ শেষ হয় এ বছরের ৩১ জানুয়ারি। এরপর বিভিন্ন ধরণের পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়। মঙ্গলবার রাতে একটি পাইপের মুখে আগুন দিয়ে গ্যাসের চাপ পরীক্ষা করা হয়।

গণমাধ্যম কর্মীদের সংবাদ সংগ্রহ

 

শ্রীকাইল পূর্ব-১-গ্যাস প্রকল্পের খনন কর্মকর্তা মুহাম্মদ মহসিন আলম জানান, প্রাথমিকভাবে কূপটিতে গ্যাসের চাপ বেশ ভালো পাওয়া যাচ্ছে। আরো অধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর প্রসেস প্লান্টে এই গ্যাস প্রক্রিয়াজাত করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হবে।

শ্রীকাইল পূর্ব-১ গ্যাস ক্ষেত্রের প্রকল্প পরিচালক সৈয়দ মুহাম্মদ কবীর পরীক্ষামূলকভাবে গ্যাস সরবরাহের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মঙ্গলবার রাতে কূপের পাইপের মুখে আগুন দিয়ে এর চাপ পরীক্ষা করা হয়। ৩৬ ঘণ্টা পর্যন্ত চাপের পরীক্ষা করা হবে।

বাপেক্স এর মহাব্যবস্থাপক (ভূ-তত্ত্ব) মো. আলমগীর হোসেন জানান, মাটির নীচে প্রায় তিন হাজার ৮০ মিটার গভীরে গ্যাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। গ্যাসের রিজার্ভ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। কূপ থেকে দৈনিক ১২ থেকে ১৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা সম্ভব হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

নবীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির বলেন, মুজিববর্ষে এটা আমাদের জন্য প্রকৃতির অনন্য সেরা উপহার। আমরা খুব খুশি। আশা করছি এ কূপ থেকে উত্তোলিত গ্যাসের সুবিধা নবীনগরের মানুষ পাবে। এখান থেকে নবীনগরে গ্যাস দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ করছি।

 

Facebook Comments Box

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ভালো নেই : আকবর আলি খান

০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ | 7146 বার

স্বর্ণের দাম কমেছে

২৯ মে ২০১৬ | 3991 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০