শিরোনাম

প্রচ্ছদ নবীনগরের খবর, শিরোনাম, স্লাইডার

নবীনগরের জিনদপুর বাজারে মিষ্টির দোকানগুলোতে অভিনব পন্থায় প্রতারণা

ডেস্ক রিপোর্ট | শুক্রবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৬ | পড়া হয়েছে 6922 বার

নবীনগরের জিনদপুর বাজারে মিষ্টির দোকানগুলোতে অভিনব পন্থায় প্রতারণা

নবীনগর টুয়েন্টি ফোর ডট কম সাইটে এ মাসের শুরুর দিকে ‘ভেবে দেখেছেন কি! হাফ কেজি পাচ্ছেন এক কেজির দামে ‘ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটিতে পৌর এলাকা সহ উপজেলার সবকটি হাট বাজারের মিষ্টির দোকান ও ফলের দোকানগুলোতে মালামাল কেনার সময় ক্রেতাদের কাগজের ভারি প্যাকেটে ( কার্টুন) বা  মোটা কাগজে তৈরি ঠোঙ্গা দিয়ে পণ্য দিয়ে  ক্রেতাসাধারণকে প্রতারিত করা হচ্ছে,  এ বিষয়টি উক্ত সংবাদে উল্ল্যেখ করা হয়।

সংবাদে আরো বলা হয়, কাগজের তৈরি ঠোঙ্গা বা প্যাকেটের ওজন বেশি হওয়ায় সে হিসেবে নায্য মুল্য দিয়েও  প্রতারিত হচ্ছেন ক্রেতারা। এ সুযোগে আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হচ্ছে দোকানীরা।


জনসচেতনা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সংবাদটি প্রকাশিত করায় ‘নবীনগর টুয়েন্টি ফোর ডট কম’  পরিবারকে  ধন্যবাদ জানিয়ে সময়োপযোগী সংবাদ বলে মন্তব্য করেন বহু পাঠক।

রতনপুর ইউনিয়নের ভিটিবিশারা গ্রামের সোহাগ গত ২৬ অক্টোবর বন্ধুর সাথে বেড়াতে আসেন জিনদপুর ইউনিয়নের কাঠালিয়া গ্রামে। মিষ্টি কেনার উদ্যেশে জিনদপুর বাজারের আল মদিনা মিষ্টান্ন ভান্ডারে  গিয়ে মিষ্ঠির খালি পেকেট দেখেই কৌতুহলবশত এর ওজন মাপতে গিয়ে দেখেন ২৮৬ গ্রাম। তিনি ভেবে দেখলেন ১৫০ টাকা কেজিতে মিষ্টি কিনলে প্যাকেটের দাম দিতে হবে ৪২ টাকা।
৫ কেজি মিষ্টি এরকম তিনটা প্যাকেটে কেনা হলে তিনি পাবেন ৪ কেজি । ওই হিসেবে এ বাজারের প্রতিটা দোকানে খালি প্যাকেটের মাধ্যমে প্রতি মাসে লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে বলে তিনি মনে করছেন।

এছাড়াও ওই বাজারের খাজা মিষ্টান্ন ভান্ডারের দোকানে গিয়ে খালি প্যাকেটের ওজন পাওয়া গেছে ২৬২ গ্রাম। (খালি প্যাকেটের ওজন স্ব-স্ব দোকান থেকে মাপা হয়েছে)।

জিনদপুর গ্রামের বাসিন্দা ও বাজারের সাধারন ব্যবসায়ীদের অভিমত, কার্টুনের বাড়তি ওজনের বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তারা ক্রেতাদের সাথে খারাপ আচরন করেন।

বিষয়টি সংশ্লীষ্ঠ কর্তৃপক্ষের দৃষ্ঠি আকর্ষন কামনা করেন স্থানীয় জনসাধারণ।

Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

নবীনগরে ভুয়া পুলিশ আটক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ | 25655 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০