শিরোনাম

প্রচ্ছদ নবীনগরের খবর, শিরোনাম, স্লাইডার

নবীনগরে ১৫ লাখ চাঁদা না দেয়ায় ব্যবসায়ীর কপালে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি

ডেস্ক রিপোর্ট | বুধবার, ১৩ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 1318 বার

নবীনগরে ১৫ লাখ চাঁদা না দেয়ায় ব্যবসায়ীর কপালে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর পৌর শহরের মধ্য পাড়ার একটি বাড়িতে ঢুকে মুখোশপড়া দুই অস্ত্রধারী যুবক দাবিকৃত ১৫ লাখ টাকা চাঁদা না পেয়ে প্রকাশ্যে দুই রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। গুলি দুটি ঘরে থাকা টিভিতে বিদ্ধ হওয়ায় গৃহকর্তা প্রাণে বেঁচে যান। পরে ঘরের লোকজনের চিৎকারে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যান। তবে ১৫ লাখ টাকা নিতে আবারো আসবেন বলে গৃহকর্তাকে হুমকি দিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা।

এ ঘটনার পর ওই বাড়ির লোকজন চরম আতঙ্কে রয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ বিষয়ে বাড়ির গৃহকর্তা থানায় একটি লিখিত অভযোগ দিয়েছেন। নবীনগর বাজারের ‘মার্সেল এক্সক্লুসিভ’র স্থানীয় ডিলার রফিকুল ইসলামের মধ্যপাড়ার বাসায় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে।


ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম পুরো ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলেন, গত ৯ মে তার মুঠোফোনে নিজেকে ‘ছোটন’ পরিচয় দিয়ে একজন ব্যক্তি বলেন, তিনি (ছোটন) মালয়েশিয়া থেকে বলছেন। নবীনগরের একাধিক বড় বড় আলোচিত সন্ত্রাসী ঘটনা তিনিই ঘটিয়েছেন। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির কারণে তিনি অর্থ সংকটে পড়েছেন। এ অবস্থায় তার (ছোটন) দুইজন ক্যাডার আসলে আমি যেন নগদ ১৫ লাখ টাকা ওই দুই ক্যাডারের হাতে দিয়ে দেই। এরপর ঘটনাটি আমি নিকট আত্মীয় ২-১ জনকে জানালে তারা বিষয়টি ‘কেউ মজা করেছে’ বলে আমাকে চুপ থাকতে বলেন।

রফিকুল বলেন, এর মাত্র তিনদিন পর গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ইফতারির সময় মুখে মাস্ক পরা ২৫-৩০ বছরের দুই যুবক আমাকে এসে বলে, ‘ছোটন ভাই আমাদেরকে পাঠিয়েছেন। ১৫ লাখ টাকা জলদি দেন।’ এসময় আমি আমার কাছে এত টাকা নেই বলতেই দুই যুবক কোমর থেকে পিস্তল বের করে আমার কপালে ঠেক দেয়। এসময় আমার পরিবারের লোকজন চিৎকার দিলে, দুই অস্ত্রধারী যুবক পরপর দুইবার গুলি করে। গুলি দুটি ঘরের টিভিতে গিয়ে লাগে। এরপর তারা নির্বিঘ্নে পালিয়ে যায়।

উপজেলার নরসিংহপুরের বাসিন্দা ব্যবসায়ী রফিকুল বলেন, ‘যাবার আগে অস্ত্রধারী যুবকদ্বয় তাদের ১৫ লাখ টাকা নিতে আবারও আসবেন বলে হুমকি দিয়ে গেছেন।  এসব থানা পুলিশকে জানালে, আমাকে যেখানে পাওয়া যাবে সেখানেই হত্যা করা হবে বলে শাসিয়ে গেছে। এ অবস্থায় আমি আমার গোটা পরিবার নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় আছি।’

নবীনগর থানার ওসি রনোজিত রায় বলেন, ‘ঘটনা শোনার পরপরই আমি ঘটনাস্থলে যাই। সব আলামত জব্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। সন্ত্রাসীদের ধরতে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে ইতিমধ্যে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান আজ সকালে বলেন, ‘সন্ত্রাসীদের ধরতে পুলিশ ঘটনার পর থেকেই কাজ করছে। তবে পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে হবে। গৃহকর্তার নিরাপত্তার ব্যবস্থা পুলিশ করবে।’

উল্লেখ্য, প্রায় ৮ মাস আগে উপজেলা সদরের বিজয় পাড়ায় একটি বহুতল ভবনের মালিকের কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে না পেয়ে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা মধ্যরাতে ওই বাড়িতে একাধিক গুলি ছোঁড়ে।

Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

নবীনগরে ভুয়া পুলিশ আটক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ | 25220 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০