শিরোনাম

প্রচ্ছদ নবীনগরের খবর, শিরোনাম, স্লাইডার

নবীনগর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি,জাতীয় পার্টিসহ ৩৮ প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে

| বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 477 বার

নবীনগর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি,জাতীয় পার্টিসহ ৩৮ প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে

মিঠু সূত্রধর পলাশ // নবীনগর পৌরসভার ২য় নির্বাচনে মেয়র পদে ১১, সংরক্ষিত(নারী) ওয়ার্ডে ১৩ ও সাধারন ওয়ার্ডে ৬০ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন।

এদের মধ্যে বিএনপি ও জাপার মনোনীত প্রার্থীসহ ৮ মেয়র, সংরক্ষিত (নারী) ওয়ার্ডের ৩ এবং সাধারন ওয়ার্ডের ২৭ জন প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।


উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নবীনগর পৌরসভার দ্বিতিয় নির্বাচন গত ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টীর মনোনীত এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ মেয়র পদে ১১ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন। সংরক্ষিত ওয়ার্ডে (নারী) ১৩ এবং সাধারন ওয়ার্ডে ৬০ জনসহ মোট ৮৪ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন।

এদেরমধ্যে মেয়র পদে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. শাহাবুদ্দিন ধানের শীষ মার্কায় ২১৭৮ ভোট, জাতীয় পার্টীর মনোনীত প্রার্থী পৌর জাতিয় পার্টীর সাবেক সভাপতি মো.আবু জাহের লাঙ্গল মার্কায় ১২৮০ ভোট পেয়ে জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। অপর ছয় স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. মলাই মিয়া জগ মার্কায় ১১৮০, উপজেলা কমিউন্ষ্টি পার্টির সভাপতি মো. ইসহাক চামচ মার্কা মাত্র ১২৬,উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক মো.পারভেজ হোসেন হ্যাঙ্গার মার্কায় ২০১৫,জায়েদ প্যারিন রেল ইঞ্জিন মার্কায় মাত্র ২৬৬, বিএনপি নেতা ফারুক আহমেদ নারিকল গাছ মার্কায় মাত্র ২৫৫, নবীনগর বাজার কমিটির সভাপতি মো.মনির হোসন ইস্ত্রি মার্কায় ২১০০ ভোট পেয়ে জামানত বাজেয়াপ্ত হয়।

অপরদিকে সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ১৩ জন নারী কাউন্সিলর মধ্যে ৩ এবং সাধারন ওয়ার্ডের ৬০ জন প্রার্থীর মধ্যে ২৭ জন প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়।

মোট কাসটিং ভোটের ৮ ভাগের এক ভাগের কম ভোট পাওয়ায় তাদের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

উল্লেখ্য, নবীনগর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শিব শংকর দাস জয়ী হয়েছেন।

বেসরকারি ফলাফলে ‘নৌকা’ প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ৬ হাজার ৭২৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী পৌরসভার বর্তমান মেয়র স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বী করা মোহাম্মদ মাঈন উদ্দিন মোবাইল ফোন প্রতীকে ৪ হাজার ২২০ ভোট পেয়েছেন।

এছাড়া আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী বশীর আহাম্মেদ সরকার পলাশ ‘কম্পিউটার’ প্রতীকে পেয়েছেন ৩ হাজার ৭৫২ ভোট পেয়েছেন।

এছাড়াও পৌসভার ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, পৌর এলাকার ১নং ওয়ার্ড মো.আবু হানিফ,২ নং ওয়ার্ড আবু তাহের, ৩নং ওয়ার্ড গঁণি চাঁন মোকসুদ,৪ নং ওয়ার্ড আবু সাঈদ, ৫নং ওয়ার্ড মো.নূরুজ্জামান, ৬নং ওয়ার্ড মামুন মিয়া, ৭নং ওয়ার্ড শ্যামল মিয়া, ৮নং ওয়ার্ড যদু নাথ ঋষি, ৯নং ওয়ার্ড জসিম উদ্দিন।

নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান বেসরকারি ভাবে ফলাফলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

নবীনগরে ভুয়া পুলিশ আটক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ | 25771 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১