শিরোনাম

প্রচ্ছদ বিচিত্র, স্লাইডার

পাখির মুখে মানুষের ডাক!

ফিচার ডেস্ক | শনিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 1014 বার

পাখির মুখে মানুষের ডাক!

‘মা, পাপ্পা, কেমন আছ’—মানুষ না পাখি ডাকছে এমন করে। পাখির মুখে মানুষের শব্দ শুনে থমকে দাঁড়াচ্ছে দর্শনার্থীরা। প্যারট ও ম্যাকাও পাখির এমন শব্দে এদের ঘিরে দর্শনার্থীদের জটলা।

চট্টগ্রামের ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আজ শনিবার বসেছে বিভিন্ন পাখির প্রদর্শনী। দিনব্যাপী এই প্রদর্শনীতে বিদেশের বিভিন্ন পাখি স্থান পেয়েছে। তার মধ্যে ব্লু ম্যাকাও, আফ্রিকান প্যারট, কাকাতুয়া, রোজেলা, কনুর, লাভ বার্ড, বারজিগর অন্যতম।


চিটাগং বার্ড বি৶ডার্স অ্যাসোসিয়েশন ও ফেন্সি পিজন ব্রিডাস অ্যাসোসিয়েশন যৌথভাবে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করে। প্রদর্শনীতে শতাধিক প্রজাতির বিভিন্ন পাখি, কবুতর, মোরগ স্থান পেয়েছে। পাখি ও মানুষের কলকাকলিতে মুখর হয়ে ওঠে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসটি।

সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসটি পাখিপ্রেমীদের আগমনে মুখরিত হয়ে ওঠে। পাখির সৌন্দর্য দর্শন, ডাক শোনা, খুনসুটিতে মেতে ওঠা এবং সর্বোপরি পাখির সঙ্গে সেলফিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষ। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক ছিলেন শিশু-কিশোর ও তরুণ-তরুণী।

সবচেয়ে বেশি ভিড় দেখা গেছে ম্যাকাও, প্যারট, টার্কি মোরগ, হল্যান্ডের কবুতরের খাঁচার সামনে। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী তাবাসসুম তাঁর বান্ধবীসহ আসেন পাখি প্রদর্শনী দেখতে। তিনি বলেন, ‘এমন একটি প্রদর্শনী দেখে কী যে ভালো লাগছে, তা বোঝাতে পারব না। পাখির সঙ্গে ছবি তুলেছি। পাখি হাতে নিয়েছি। এ এক ভারী মজার অভিজ্ঞতা।’

চিটাগং বার্ড ব্রিডাস অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা আবদুল মালেক বলেন, পাখির সঙ্গে পরিচিত করতে এবং পাখি পালনে উৎসাহী করে তুলতে এই আয়োজনটি করা হয়। পাখির প্রতি ভালোবাসা থেকেই ব্রিডাস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা পাখি প্রতিপালন করে।

Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

নেশা তার চুল খাওয়া

১৮ মে ২০১৬ | 2163 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০