শিরোনাম

প্রচ্ছদ জাতীয়, শিরোনাম, স্লাইডার

প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালক শাহ আলমগীর

সাংবাদিক নামধারী হলুদ সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান

অনলাইন ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, ০২ জুন ২০১৬ | পড়া হয়েছে 1802 বার

সাংবাদিক নামধারী হলুদ সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান

সোমবার সাংবাদিকদের এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “আমাদের দেশে টেলিভিশন ও পত্রিকার বেশিরভাগ সাংবাদিকের দক্ষতা খুবই কম। অনেক টেলিভিশন আছে তারা যখন জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেয় তখন জামানত বাবদ ১ লক্ষ টাকা রেখে একটি কার্ড দিয়ে দেওয়া হয়। এর বাহিরে বেতন-ভাতা বলতে আর কিছু দেওয়া হয় না। বলা হয়, আপনি আয় করে নেন।”

“নিয়োগ দেওয়ার পর তাদের প্রশিক্ষণের কোনো ব্যবস্থা করে না ওই প্রতিষ্ঠান। … যার ফলে অপসাংবাদিকতা বাড়ছে। আর এই সুযোগে এক শ্রেণির লোক সাংবাদিকতার নাম ভাঙ্গিয়ে অপসাংবাদিকতা করছে।


কোনো কোনো সাংবাদিক বেতন-ভাতা না পেয়েও গাড়ি নিয়ে ঘোরেন- এমন অভিযোগ করে বিভিন্ন টেলিভিশনে কাজ করা শাহ আলমগীর বলেন, “আমরা দেখেছি বেতন-ভাতা পায় না, অথচ গাড়ি নিয়ে চলছে। আপনি জেলায় গিয়ে দেখবেন, ওই সাংবাদিকদের প্রভাব বেশি। ওনারা ডিসি, এসপি, ওসির গাড়িতে করে ঘোরেন।”

“নিজেদের পেশার মর্যাদা রক্ষার জন্য, সাংবাদিকদের প্রতি মানুষের আস্থা বাড়াতে সাংবাদিক নামধারী হলুদ সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলুন,” বলেন তিনি।

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সারা দেশের পেশাদার সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়নসহ ১৪ দফা দাবিতে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম দ্বিতীয় জাতীয় কাউন্সিল উপলক্ষে এ সভা আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের ভোলা জেলার সভাপতি ও এনটিভির রিপোর্টার আফজাল হোসেন বলেন, “আমরা যারা মফস্বলে সাংবাদিকতা করি, আমাদের কোনো বেতন-ভাতা দেওয়া হয় না। আমরা চলব কীভাবে? বরং অফিস থেকে মাসিক টাকা চাওয়া হয়। এই টাকা জেলা প্রতিনিধিরা পাবে কোথায়? তাহলে আমাদের দুষছেন কেন?

“আবার বলছেন, জেলা প্রতিনিধিরা চাঁদা নেয়।কোনো ধরনের বাছাই না করে আপনারা সাংবাদিক নিয়োগ দিচ্ছেন। এতে করে হলুদ সাংবাদিকতা বাড়ছে। আর এদের এই ব্যাপকতা দেখে এখন আমাদের সাংবাদিক পরিচয় দিতে লজ্জা হয়।”

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির যুগ্ম সম্পাদক মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, “মফস্বলে অপসাংবাদিকতা দূর করতে হলে এই পেশায় প্রবেশের জন্য ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ করতে হবে এবং পেশাদার সাংবাদিকদের একটি তালিকা প্রণয়ন করে তাদেরকে প্রশিক্ষণ দিতে হবে।”

এসময় সাংবাদিকতা পেশার মর্যাদা রক্ষায় মফস্বল সাংবাদিকদের জন্য পৃথক বেতন কাঠামোর দাবি জানান তিনি।

সংগঠনের সভাপতি এস এম আব্দুল মুগনী নিরোর সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ আবু জাফর।

Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ভালো নেই : আকবর আলি খান

০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ | 6910 বার

স্বর্ণের দাম কমেছে

২৯ মে ২০১৬ | 3604 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১