শিরোনাম

প্রচ্ছদ নবীনগরের খবর, শিরোনাম, স্লাইডার

হতভাগা সেই অটোচালকের পরিবারের পাশে সাহায্যের হাত বাড়ালেন যে দুইজন

ডেস্ক রিপোর্ট | মঙ্গলবার, ১২ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 156 বার

হতভাগা সেই অটোচালকের পরিবারের পাশে সাহায্যের হাত বাড়ালেন যে দুইজন

নবীনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক অটোচালকের অসহায় পরিবারের পাশে  সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় এক নেতা সহ অনন্ত হিরা নামে আরেক ব্যক্তি।

এ দুইজন সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে অসহায় পরিবারটির পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাদের এ মহত কাজের প্রশংসা করেছে সেখানকার সুধিজন।


জানা যায়, গত শনিবার সন্ধ্যায় আলমনগর গ্রামের প্রবেশমুখে ভাটা নদীর উপরে নির্মিত ঝুকিপূর্ণ ব্রিজ পাড় হতে গিয়ে ব্রিজের রেলিং না থাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অটোরিকশা উল্টে খাদে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলে আসাদুল নামে অটোচালকের মৃত্যু ঘটে। আসাদুল নবীপুর গ্রামের জিন্নাত আলীর ছেলে।

করুন এ মর্মান্তিক মৃত্যুর খবরটি নবীনগর টুয়েন্টি ফোর ডটকম সাইটে দেখে অনন্ত হিরা সিদ্ধান্ত নেন নিহতের পরিবারের পাশে সাধ্যমতো সহযোগীতা করবেন তিনি। ওইদিন রাতেই উক্ত সাইটের সম্পাদকের কাছ থেকে ঠিকানা সংগ্রহ করেন তিনি। ছোট দুই ভাই উদয় ও ফাহিমকে নিয়ে রওয়ানা হন নবীপুর গ্রামের উদ্যেশে। বেলা দশটা কি সাড়ে দশটা। পুরো গ্রামেই যেন করোনার প্রভাবে মানুষজনের উপস্তিতি তেমন নেই।  বাড়ি চিনতে অসুবিধে হয়নি জানালেন অনন্ত হিরা। নড়বড়ে দু’চালা একটি ঘরে আসাদুলের সংসার।

নিহত আসাদুলের তিন তিনটে ফুটফুটে বাচ্চাকে দেখেই ভিতর কেপে উঠে অনন্তর। বাপ কি জিনিস অনুভূতি বুঝার আগেই বাবাকে হারিয়েছে এরা। অন্তসত্বা স্ত্রীও স্বামীকে হারিয়ে নির্বাক নয়নে বাকরুদ্ধ তাকিয়ে থাকেন। এ কোন পরিক্ষায় আছে আসাদুলের স্ত্রী।  এ যে অকুল নদীর মাঝখানে ডুবে মরার মতোই তার অবস্থা এখন। সন্তান সম্ভবা আসাদুলের তিন সন্তানের ভবিষ্যত অনিশ্চয়তার মধ্যে এখন। অনন্ত হিরা জানান, আসাদুল আগে চটপটি ও ফুচকা বিক্রি করতো। চলতি করোনা পরস্থিতিতে লক ডাওনে ব্যবসা বন্ধ থাকায় জীবিকার তাগিদে পালিত গাভী বিক্রি করে অটোরিকশা কেনেন আসাদুল। কয়েকদিন গাড়ি চালানো শিখে নিজেই চালকের আসনে বসে গাড়ি চালাতে থাকেন। কয়েকদিন চালিয়েই দুর্ঘটনায় পতিত হয় সে।  নিজে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেন, চুরমার হয় সদ্য কেনা গাড়িটি। ভেঙ্গে যায় সব স্বপ্ন।

 

বেঁঁচে থাকা কষ্টের। বাস্তবতা বড় নিষ্ঠুর। অনন্ত হিরা আসার পথে বাচ্চাদের হাতে চিপসের প্যাকেট, বিস্কুট তুলে দেন। এছাড়াও খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট  তুলে দেন আসাদুলের স্ত্রীর হাতে। এতে ১৫ কেজি চাল, ১০ কেজি আলু, ৫ কেজি সয়াবিন তেল, ৫ কেজি পেয়াজ,২ কেজি লবন, ১ কেজি ডাল, দেড় কেজি খেজুর, এক লিটার জুস ও চিপসের প্যাকেট।

এছাড়াও প্রতিবারের মতো এবারো আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা আলামিনুল হক আলামিন ওই পরিবারের খোজ খবর নিতে ছুটে যান নবীপুর গ্রামের নিহত আসাদুলের বাড়িতে।

সেখানে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে স্থানীয় কয়েকজনের সাথে কথা বলেন, আসাদুলের স্ত্রীর সাথেও কথা বলে বর্তমান পরিস্থিতি জানতে চান। এসময় তিনি আসাদুলের স্ত্রীর সাথে কথা বলে পাঁচদিনের দিন কুলখানির জন্য খাবার সামগ্রী বুঝিয়ে দেন যুবলীগের এই নেতা। এছাড়াও যে কোন প্রয়োজনে তাকে জানাতে বলে আসেন তিনি।

Comments

comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

নবীনগরে ভুয়া পুলিশ আটক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ | 25220 বার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০