শিরোনাম

প্রচ্ছদ আলোকিত জন

কর্মবীর বিপুল বনিক যে কারনে সবার প্রিয় হয়ে উঠছেন

এস এ রুবেল | রবিবার, ৩০ মে ২০২১ | পড়া হয়েছে 678 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
কর্মবীর বিপুল বনিক যে কারনে সবার প্রিয় হয়ে উঠছেন

নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর গ্রামের কৃতী সন্তান এলজিইডি তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (রক্ষণাবেক্ষণ) বিপুল বনিকের গতকাল ২৯ মে ছিলো জন্মদিন। জন্মদিন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামিলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে ফেসবুকে লিখেন,

আমরা অনেক সময় কোন বিশিষ্ট জনকে খুশি করার জন্য মিথ্যা বিশেষণে বিশেষায়িত করি। যাহা অনভিপ্রেত। কিন্তু আজ এমন একজন গুণিজনের কথা বলছি, যে নামটি উচ্চারিত হলে স্বর্বস্তরের জনগন উৎফুল্ল চিত্তে, গর্বভরে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন। তিনি হলেন আমাদের নবীনগর ...বিস্তারিত

নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর গ্রামের কৃতী সন্তান এলজিইডি তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (রক্ষণাবেক্ষণ) বিপুল বনিকের গতকাল ২৯ মে ছিলো জন্মদিন। জন্মদিন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামিলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে ফেসবুকে লিখেন,

আমরা অনেক সময় কোন বিশিষ্ট জনকে খুশি করার জন্য মিথ্যা বিশেষণে বিশেষায়িত করি। যাহা অনভিপ্রেত। কিন্তু আজ ...বিস্তারিত

নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর গ্রামের কৃতী সন্তান এলজিইডি তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (রক্ষণাবেক্ষণ) বিপুল বনিকের গতকাল ২৯ মে ছিলো জন্মদিন। জন্মদিন উপলক্ষে ...বিস্তারিত

নবীনগরের ভোলাচংয়ের অতীন্দ্রমোহন রায়ের ব্রিটিশ বিরোধী বিপ্লবী হয়ে উঠার গল্প

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১ | পড়া হয়েছে 398 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
নবীনগরের ভোলাচংয়ের অতীন্দ্রমোহন রায়ের ব্রিটিশ বিরোধী বিপ্লবী হয়ে উঠার গল্প

ভোলাচং গ্রামের জমিদার আনন্দমোহন রায় চৌধুরীর ছেলে অতীন্দ্রমোহন রায় চৌধুরী। তিনি অতীন রায় নামেই সর্বাধিক পরিচিত। জন্ম ১৮৯৪ সালে ভোলাচং গ্রামে। হাই স্কুলে পড়ার সময় তিনি বঙ্গভঙ্গ আন্দোলনের যোগ দেন। ১৯১১ সালে গোপন বিপ্লবী দল অনুশীলন এর সদস্য হন। ভিক্টোরিয়া কলেজে দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যয়নকালে বিপ্লবী কর্মকান্ডের দায়ে পুলিশ তাঁকে আটক করে এবং সে সঙ্গে তাঁর পরবর্তী পড়াশুনার পথও বন্ধ হয়ে যায়। ১৯১৬ সালে পলাতক জীবনের শুরু। ঢাকার কলতা বাজারে দু’জন পুলিশ ...বিস্তারিত

ভোলাচং গ্রামের জমিদার আনন্দমোহন রায় চৌধুরীর ছেলে অতীন্দ্রমোহন রায় চৌধুরী। তিনি অতীন রায় নামেই সর্বাধিক পরিচিত। জন্ম ১৮৯৪ সালে ভোলাচং গ্রামে। হাই স্কুলে পড়ার সময় তিনি বঙ্গভঙ্গ আন্দোলনের যোগ দেন। ১৯১১ সালে গোপন বিপ্লবী দল অনুশীলন এর সদস্য হন। ভিক্টোরিয়া কলেজে দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যয়নকালে বিপ্লবী কর্মকান্ডের দায়ে পুলিশ তাঁকে আটক ...বিস্তারিত

ভোলাচং গ্রামের জমিদার আনন্দমোহন রায় চৌধুরীর ছেলে অতীন্দ্রমোহন রায় চৌধুরী। তিনি অতীন রায় নামেই সর্বাধিক পরিচিত। জন্ম ১৮৯৪ সালে ভোলাচং ...বিস্তারিত

আজ শহীদ আবদুল মান্নান বীর বিক্রম এঁর ৪৯তম মৃত্যু বার্ষিকী

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | বুধবার, ০৭ অক্টোবর ২০২০ | পড়া হয়েছে 844 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
আজ শহীদ আবদুল মান্নান বীর বিক্রম এঁর ৪৯তম মৃত্যু বার্ষিকী

সমস্ত শরীরে দারুন এক আবেগ খেলে গেল। এ এক অন্যরকম অনূভুতি। তা লিখে বোঝানোর ক্ষমতা আমার নেই। আহ! শেষ পর্যন্ত কবরটি খুঁজে পেলাম।‘ দীর্ঘ ৪৮ বছর পর, ২০০ মাইল দুরে এক শহীদের পাশে এক আপনজন। আপনজনই তো, একই এলাকার মানুষ। ঘটনাটি এরকম.........., এক মুক্তিযোদ্ধার কবরের খুঁজে রওনা দেয়। নবীনগর থেকে চট্টগ্রামের মদুনাঘাট, হালদা নদীর পাড়ে। দীর্ঘদিনের লালিত ইচ্ছা পূরনের আকাংখা নিয়ে। সূনির্দিস্ট ঠিকানা কিছুই জানিনা, ভরসা শুধু বুকপকেটে থাকা নোটবুক ও কিছু ...বিস্তারিত

সমস্ত শরীরে দারুন এক আবেগ খেলে গেল। এ এক অন্যরকম অনূভুতি। তা লিখে বোঝানোর ক্ষমতা আমার নেই। আহ! শেষ পর্যন্ত কবরটি খুঁজে পেলাম।‘ দীর্ঘ ৪৮ বছর পর, ২০০ মাইল দুরে এক শহীদের পাশে এক আপনজন। আপনজনই তো, একই এলাকার মানুষ। ঘটনাটি এরকম.........., এক মুক্তিযোদ্ধার কবরের খুঁজে রওনা দেয়। নবীনগর থেকে চট্টগ্রামের মদুনাঘাট, ...বিস্তারিত

সমস্ত শরীরে দারুন এক আবেগ খেলে গেল। এ এক অন্যরকম অনূভুতি। তা লিখে বোঝানোর ক্ষমতা আমার নেই। আহ! শেষ পর্যন্ত ...বিস্তারিত

মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য দানশীলতার এক গৌরব ব্যক্তিত্ব

ডেস্ক রিপোর্ট | রবিবার, ১৭ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 1316 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য দানশীলতার এক গৌরব ব্যক্তিত্ব

তৎকালীন ত্রিপুরার রাজ্যের ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমার নূরনগর পরগানার নবীনগর থানার বিটঘর গ্রামে ১৮৫৮ সালে জন্ম নেন পরবর্তী কালের এক আলোচিত ব্যাক্তিত্ব কর্মযোগী মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য। তিনি ১৯৪৩ সালে পরলোকগমন করেন। তাঁর পিতার নাম ঈশ্বর চন্দ্র তর্ক সিদ্ধান্ত,মাতার নাম রামমালা দেবী। মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য ১২৮৬ বাংলায় কুমিল্লা জিলা স্কুলে দশম শ্রেণিতে ছাত্রাবস্থায় ভাগ্যনবষনে বেরিয়ে পড়েন। প্রথমে তিনি কলকাতা বন্দরে শ্রমিকের কাজ করেন। সেখানে তিনি পাচক হিসাবে যোগ দিয়ে ক্ষুদ্র ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন। ব্যবসার ...বিস্তারিত

তৎকালীন ত্রিপুরার রাজ্যের ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমার নূরনগর পরগানার নবীনগর থানার বিটঘর গ্রামে ১৮৫৮ সালে জন্ম নেন পরবর্তী কালের এক আলোচিত ব্যাক্তিত্ব কর্মযোগী মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য। তিনি ১৯৪৩ সালে পরলোকগমন করেন। তাঁর পিতার নাম ঈশ্বর চন্দ্র তর্ক সিদ্ধান্ত,মাতার নাম রামমালা দেবী। মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য ১২৮৬ বাংলায় কুমিল্লা জিলা স্কুলে দশম শ্রেণিতে ছাত্রাবস্থায় ভাগ্যনবষনে ...বিস্তারিত

তৎকালীন ত্রিপুরার রাজ্যের ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমার নূরনগর পরগানার নবীনগর থানার বিটঘর গ্রামে ১৮৫৮ সালে জন্ম নেন পরবর্তী কালের এক আলোচিত ব্যাক্তিত্ব ...বিস্তারিত

বিটঘর গ্রামের কৃতিসন্তান দানবীর মহেশচন্দ্র ভট্টাচার্য কিংবদন্তী একজন

এস এ রুবেল | রবিবার, ১৭ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 611 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
বিটঘর গ্রামের কৃতিসন্তান দানবীর মহেশচন্দ্র ভট্টাচার্য কিংবদন্তী একজন

নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশ রোডের নাম শুনেছেন অনেকেই। উপজেলার বিটঘর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মহেশ চন্দ্র ভট্রাচার্য্য। মুলত উনার নামানুসারেই এ সড়কের নামকরণ করা হয়। একটা সময় ওই অঞ্চলে সড়ক বলতে কিছুই ছিলোনা। বর্তমানের চিত্রে এখনো চোখে পড়ার মতো উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠেনি ওই অঞ্চলে। আনুমানিক একশত বছরেরও বহু আগে এলাকার সাধারণ মানুষের আসা-যাওয়ার সুবিধার্থে নিজের কেনা জায়গায় মহেশ সড়ক তৈরি করেন তিনি। সড়কের বিভিন্ন স্থানে সেসময়ে লোহার পুল তৈরি করে মহেশ ...বিস্তারিত

নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশ রোডের নাম শুনেছেন অনেকেই। উপজেলার বিটঘর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মহেশ চন্দ্র ভট্রাচার্য্য। মুলত উনার নামানুসারেই এ সড়কের নামকরণ করা হয়। একটা সময় ওই অঞ্চলে সড়ক বলতে কিছুই ছিলোনা। বর্তমানের চিত্রে এখনো চোখে পড়ার মতো উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠেনি ওই অঞ্চলে। আনুমানিক একশত বছরেরও বহু আগে এলাকার সাধারণ ...বিস্তারিত

নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশ রোডের নাম শুনেছেন অনেকেই। উপজেলার বিটঘর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মহেশ চন্দ্র ভট্রাচার্য্য। মুলত উনার নামানুসারেই এ সড়কের ...বিস্তারিত

সিঙ্গাপুরের হাইকমিশনার নবীনগরের সাতমোড়া গ্রামের মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান

| সোমবার, ০৪ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 2125 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
সিঙ্গাপুরের হাইকমিশনার নবীনগরের সাতমোড়া গ্রামের মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান

সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মুন্সি বাড়ীর এই কৃতি সন্তানের ডাক নাম মোঃ লিটন। জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ সালে সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশর সিঙ্গাপুরের হাই কমিশনার হিসাবে যোগদান করেছেন। এই পদে যোগদানের আগে জনাব রহমান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ইউনাইটেড নেশনস উইংয়ের মহাপরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ক্যারিয়ারের কূটনীতিক, জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ বৈদেশিক পরিষেবায় যোগদান করেছিলেন। দীর্ঘ সময় ...বিস্তারিত

সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মুন্সি বাড়ীর এই কৃতি সন্তানের ডাক নাম মোঃ লিটন। জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ সালে সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশর সিঙ্গাপুরের হাই কমিশনার হিসাবে যোগদান করেছেন। এই পদে যোগদানের আগে জনাব রহমান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ইউনাইটেড নেশনস ...বিস্তারিত

সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মুন্সি বাড়ীর এই কৃতি সন্তানের ডাক ...বিস্তারিত

শহীদ আব্দুল লতিফ: মৃত্যুহীন এক প্রাণ

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন। | রবিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 1877 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
শহীদ আব্দুল লতিফ: মৃত্যুহীন এক প্রাণ

সিনেমা হলের রুপালী পর্দায় আমরা যারা এ্যাকশান হিরো আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ও সিলভেস্টার স্ট্যালোন’র কমান্ডো অভিযান দেখে রোমাঞ্চিত হয়। অথবা বাসার ড্রয়িং রুমে বসে টিভি সেটে আজকের প্রজন্মের যারা যুদ্ধ ছবি ‘সেভিং প্রাইভেট রায়ান’ ও ‘ব্লেক হক ডাউন’ দেখে আতংকে ভয়ে শিউরে ওঠেন। তাদের কেউ জানবে না কোন দিন যে, একাত্তরে সারা বাংলার বুক জুড়ে এরচেয়ে লোমহর্ষক বহু অপারেশন করেছিল আমাদের বীর মুক্তিযোদ্ধারা। হালদা নদী অপারেশন তারই একটি। আজ শুনাব আমাদের ...বিস্তারিত

সিনেমা হলের রুপালী পর্দায় আমরা যারা এ্যাকশান হিরো আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ও সিলভেস্টার স্ট্যালোন’র কমান্ডো অভিযান দেখে রোমাঞ্চিত হয়। অথবা বাসার ড্রয়িং রুমে বসে টিভি সেটে আজকের প্রজন্মের যারা যুদ্ধ ছবি ‘সেভিং প্রাইভেট রায়ান’ ও ‘ব্লেক হক ডাউন’ দেখে আতংকে ভয়ে শিউরে ওঠেন। তাদের কেউ জানবে না কোন দিন যে, একাত্তরে ...বিস্তারিত

সিনেমা হলের রুপালী পর্দায় আমরা যারা এ্যাকশান হিরো আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ও সিলভেস্টার স্ট্যালোন’র কমান্ডো অভিযান দেখে রোমাঞ্চিত হয়। অথবা বাসার ...বিস্তারিত

‘শেষ ব্যক্তি শেষ বুলেট’

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | বৃহস্পতিবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 2583 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
‘শেষ ব্যক্তি শেষ বুলেট’

ঠাস ঠাস, দ্রিম দ্রিম শব্দে কেঁপে উঠে সিলেটের তেলিয়াপাড়া এলাকা। ১৯৭১ সালের ২রা ডিসেম্বর। রাত আনুমানিক ৮টা। হঠাৎ গুলাগুলির শব্দে রাতের নির্জনতা ভেঙ্গে পড়ে। পাক বাহিনী ও তার সহযোগী রাজাকাররা মুক্তিবাহিনীর ক্যাম্পে অতর্কিত আক্রমণ করে। অন্ধকারে একসঙ্গে এক ঝাঁক অস্ত্রের গর্জন। আকস্মিক আক্রমণে মু্ক্তিযোদ্ধারা সবাই অপ্রস্তুত হয়ে পড়ে। শত্রু একেবারে নাগালের মধ্যে চলে এসেছে। পাকিস্তানি সেনাদের ঘেরাওয়ের মধ্যে পড়ে যায় মুক্তিযোদ্ধারা। এতে করে সেখানে এক বিশৃঙ্খল অবস্থায় সৃষ্টি হয়। এরকম ...বিস্তারিত

ঠাস ঠাস, দ্রিম দ্রিম শব্দে কেঁপে উঠে সিলেটের তেলিয়াপাড়া এলাকা। ১৯৭১ সালের ২রা ডিসেম্বর। রাত আনুমানিক ৮টা। হঠাৎ গুলাগুলির শব্দে রাতের নির্জনতা ভেঙ্গে পড়ে। পাক বাহিনী ও তার সহযোগী রাজাকাররা মুক্তিবাহিনীর ক্যাম্পে অতর্কিত আক্রমণ করে। অন্ধকারে একসঙ্গে এক ঝাঁক অস্ত্রের গর্জন। আকস্মিক আক্রমণে মু্ক্তিযোদ্ধারা সবাই অপ্রস্তুত হয়ে পড়ে। শত্রু একেবারে ...বিস্তারিত

ঠাস ঠাস, দ্রিম দ্রিম শব্দে কেঁপে উঠে সিলেটের তেলিয়াপাড়া এলাকা। ১৯৭১ সালের ২রা ডিসেম্বর। রাত আনুমানিক ৮টা। হঠাৎ গুলাগুলির শব্দে ...বিস্তারিত

অকুতোভয় এক বীর যোদ্ধার গল্প

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | সোমবার, ১২ নভেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 1564 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
অকুতোভয় এক বীর যোদ্ধার গল্প

চারদিকে গোলাগুলির তীব্র শব্দ। বৃষ্টির মত গুলি। সাথে আর্টিলারির ব্যাপক গোলাবর্ষণ। বারুদের গন্ধ, আর্তনাদ আর চিৎকার। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে মুক্তিযোদ্ধারা। রক্তক্ষয়ী বিভৎস এক যুদ্ধ।উত্তেজনাকর অনিশ্চিত এক পরিস্থিতি। এক পর্যায়ে শুরু হয়েছে হাতাহাতি যুদ্ধ, বেয়নেট চার্জ। ইংরেজীতে যাকে বলে “ডু অর ডাই”। “জয় অথবা মৃত্যু”। যে কোন একটি বেছে নিতে হবে। নায়েব সুবেদার শামসুল হকের প্রত্যয়ও তাই। বিজয় অথবা শহীদ। বীর বিক্রমে ঝাঁপিয়ে পড়লেন শত্রু সেনাদের ওপর। হত্যা করতে লাগলেন একের ...বিস্তারিত

চারদিকে গোলাগুলির তীব্র শব্দ। বৃষ্টির মত গুলি। সাথে আর্টিলারির ব্যাপক গোলাবর্ষণ। বারুদের গন্ধ, আর্তনাদ আর চিৎকার। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে মুক্তিযোদ্ধারা। রক্তক্ষয়ী বিভৎস এক যুদ্ধ।উত্তেজনাকর অনিশ্চিত এক পরিস্থিতি। এক পর্যায়ে শুরু হয়েছে হাতাহাতি যুদ্ধ, বেয়নেট চার্জ। ইংরেজীতে যাকে বলে “ডু অর ডাই”। “জয় অথবা মৃত্যু”। যে কোন একটি বেছে নিতে হবে। ...বিস্তারিত

চারদিকে গোলাগুলির তীব্র শব্দ। বৃষ্টির মত গুলি। সাথে আর্টিলারির ব্যাপক গোলাবর্ষণ। বারুদের গন্ধ, আর্তনাদ আর চিৎকার। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে মুক্তিযোদ্ধারা। ...বিস্তারিত

শাহজাহান সিদ্দিকী (বীর বিক্রম)

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | বৃহস্পতিবার, ২৩ আগস্ট ২০১৮ | পড়া হয়েছে 2092 বার


Notice: Undefined variable: post_ID in /home/nabinagar24/public_html/wp-content/themes/newsportal/category.php on line 38
শাহজাহান সিদ্দিকী (বীর বিক্রম)

১৯৭১। ১৫ই আগস্টের সকাল। আকাশবাণী কলকাতা রেডিওতে বেজে উঠল একটি গান “ আমার পুতুল আজকে যাবে শশুরবাড়ী”। উত্তেজনায় থরথর করে কাঁপছে শাহজাহান সিদ্দিকী। সারা পৃথিবী শুনল আরতি মুখোপাধ্যায়’র গান আর মুক্তিযোদ্ধের নৌ-কমান্ডোরা পেয়ে গেলেন অপারেশনের গ্রীন সিগন্যাল। সেদিনের সূর্য আস্তে আস্তে পশ্চিম আকাশে বিদায় নিল। দ্রুতই প্রস্তুত হন নৌ-কমান্ডোরা; প্রত্যেকেই সঙ্গে নেন একটি স্টেনগান, এক জোড়া ফিঞ্চ, একটি ছুরি আর বুকে বাঁধা ৫ কেজি ওজনের লিমপেট মাইন। এই রাতই শেষ রাত, ...বিস্তারিত

১৯৭১। ১৫ই আগস্টের সকাল। আকাশবাণী কলকাতা রেডিওতে বেজে উঠল একটি গান “ আমার পুতুল আজকে যাবে শশুরবাড়ী”। উত্তেজনায় থরথর করে কাঁপছে শাহজাহান সিদ্দিকী। সারা পৃথিবী শুনল আরতি মুখোপাধ্যায়’র গান আর মুক্তিযোদ্ধের নৌ-কমান্ডোরা পেয়ে গেলেন অপারেশনের গ্রীন সিগন্যাল। সেদিনের সূর্য আস্তে আস্তে পশ্চিম আকাশে বিদায় নিল। দ্রুতই প্রস্তুত হন নৌ-কমান্ডোরা; প্রত্যেকেই সঙ্গে ...বিস্তারিত

১৯৭১। ১৫ই আগস্টের সকাল। আকাশবাণী কলকাতা রেডিওতে বেজে উঠল একটি গান “ আমার পুতুল আজকে যাবে শশুরবাড়ী”। উত্তেজনায় থরথর করে কাঁপছে ...বিস্তারিত

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১