শিরোনাম

প্রচ্ছদ আলোকিত জন

মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য দানশীলতার এক গৌরব ব্যক্তিত্ব

ডেস্ক রিপোর্ট | রবিবার, ১৭ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 179 বার

তৎকালীন ত্রিপুরার রাজ্যের ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমার নূরনগর পরগানার নবীনগর থানার বিটঘর গ্রামে ১৮৫৮ সালে জন্ম নেন পরবর্তী কালের এক আলোচিত ব্যাক্তিত্ব কর্মযোগী মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য। তিনি ১৯৪৩ সালে পরলোকগমন করেন। তাঁর পিতার নাম ঈশ্বর চন্দ্র তর্ক সিদ্ধান্ত,মাতার নাম রামমালা দেবী। মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য ১২৮৬ বাংলায় কুমিল্লা জিলা স্কুলে দশম শ্রেণিতে ছাত্রাবস্থায় ভাগ্যনবষনে বেরিয়ে পড়েন। প্রথমে তিনি কলকাতা বন্দরে শ্রমিকের কাজ করেন। সেখানে তিনি পাচক হিসাবে যোগ দিয়ে ক্ষুদ্র ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন। ব্যবসার ...বিস্তারিত

তৎকালীন ত্রিপুরার রাজ্যের ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমার নূরনগর পরগানার নবীনগর থানার বিটঘর গ্রামে ১৮৫৮ সালে জন্ম নেন পরবর্তী কালের এক আলোচিত ব্যাক্তিত্ব কর্মযোগী মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য। তিনি ১৯৪৩ সালে পরলোকগমন করেন। তাঁর পিতার নাম ঈশ্বর চন্দ্র তর্ক সিদ্ধান্ত,মাতার নাম রামমালা দেবী। মহেশ চন্দ্র ভট্টাচার্য ১২৮৬ বাংলায় কুমিল্লা জিলা স্কুলে দশম শ্রেণিতে ছাত্রাবস্থায় ভাগ্যনবষনে ...বিস্তারিত

তৎকালীন ত্রিপুরার রাজ্যের ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমার নূরনগর পরগানার নবীনগর থানার বিটঘর গ্রামে ১৮৫৮ সালে জন্ম নেন পরবর্তী কালের এক আলোচিত ব্যাক্তিত্ব ...বিস্তারিত

বিটঘর গ্রামের কৃতিসন্তান দানবীর মহেশচন্দ্র ভট্টাচার্য কিংবদন্তী একজন

এস এ রুবেল | রবিবার, ১৭ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 89 বার

নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশ রোডের নাম শুনেছেন অনেকেই। উপজেলার বিটঘর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মহেশ চন্দ্র ভট্রাচার্য্য। মুলত উনার নামানুসারেই এ সড়কের নামকরণ করা হয়। একটা সময় ওই অঞ্চলে সড়ক বলতে কিছুই ছিলোনা। বর্তমানের চিত্রে এখনো চোখে পড়ার মতো উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠেনি ওই অঞ্চলে। আনুমানিক একশত বছরেরও বহু আগে এলাকার সাধারণ মানুষের আসা-যাওয়ার সুবিধার্থে নিজের কেনা জায়গায় মহেশ সড়ক তৈরি করেন তিনি। সড়কের বিভিন্ন স্থানে সেসময়ে লোহার পুল তৈরি করে মহেশ ...বিস্তারিত

নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশ রোডের নাম শুনেছেন অনেকেই। উপজেলার বিটঘর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মহেশ চন্দ্র ভট্রাচার্য্য। মুলত উনার নামানুসারেই এ সড়কের নামকরণ করা হয়। একটা সময় ওই অঞ্চলে সড়ক বলতে কিছুই ছিলোনা। বর্তমানের চিত্রে এখনো চোখে পড়ার মতো উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠেনি ওই অঞ্চলে। আনুমানিক একশত বছরেরও বহু আগে এলাকার সাধারণ ...বিস্তারিত

নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশ রোডের নাম শুনেছেন অনেকেই। উপজেলার বিটঘর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মহেশ চন্দ্র ভট্রাচার্য্য। মুলত উনার নামানুসারেই এ সড়কের ...বিস্তারিত

সিঙ্গাপুরের হাইকমিশনার নবীনগরের সাতমোড়া গ্রামের মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান

| সোমবার, ০৪ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 1196 বার

সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মুন্সি বাড়ীর এই কৃতি সন্তানের ডাক নাম মোঃ লিটন। জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ সালে সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশর সিঙ্গাপুরের হাই কমিশনার হিসাবে যোগদান করেছেন। এই পদে যোগদানের আগে জনাব রহমান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ইউনাইটেড নেশনস উইংয়ের মহাপরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ক্যারিয়ারের কূটনীতিক, জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ বৈদেশিক পরিষেবায় যোগদান করেছিলেন। দীর্ঘ সময় ...বিস্তারিত

সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মুন্সি বাড়ীর এই কৃতি সন্তানের ডাক নাম মোঃ লিটন। জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ সালে সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশর সিঙ্গাপুরের হাই কমিশনার হিসাবে যোগদান করেছেন। এই পদে যোগদানের আগে জনাব রহমান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ইউনাইটেড নেশনস ...বিস্তারিত

সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মুন্সি বাড়ীর এই কৃতি সন্তানের ডাক ...বিস্তারিত

শহীদ আব্দুল লতিফ: মৃত্যুহীন এক প্রাণ

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন। | রবিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 964 বার

সিনেমা হলের রুপালী পর্দায় আমরা যারা এ্যাকশান হিরো আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ও সিলভেস্টার স্ট্যালোন’র কমান্ডো অভিযান দেখে রোমাঞ্চিত হয়। অথবা বাসার ড্রয়িং রুমে বসে টিভি সেটে আজকের প্রজন্মের যারা যুদ্ধ ছবি ‘সেভিং প্রাইভেট রায়ান’ ও ‘ব্লেক হক ডাউন’ দেখে আতংকে ভয়ে শিউরে ওঠেন। তাদের কেউ জানবে না কোন দিন যে, একাত্তরে সারা বাংলার বুক জুড়ে এরচেয়ে লোমহর্ষক বহু অপারেশন করেছিল আমাদের বীর মুক্তিযোদ্ধারা। হালদা নদী অপারেশন তারই একটি। আজ শুনাব আমাদের ...বিস্তারিত

সিনেমা হলের রুপালী পর্দায় আমরা যারা এ্যাকশান হিরো আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ও সিলভেস্টার স্ট্যালোন’র কমান্ডো অভিযান দেখে রোমাঞ্চিত হয়। অথবা বাসার ড্রয়িং রুমে বসে টিভি সেটে আজকের প্রজন্মের যারা যুদ্ধ ছবি ‘সেভিং প্রাইভেট রায়ান’ ও ‘ব্লেক হক ডাউন’ দেখে আতংকে ভয়ে শিউরে ওঠেন। তাদের কেউ জানবে না কোন দিন যে, একাত্তরে ...বিস্তারিত

সিনেমা হলের রুপালী পর্দায় আমরা যারা এ্যাকশান হিরো আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ও সিলভেস্টার স্ট্যালোন’র কমান্ডো অভিযান দেখে রোমাঞ্চিত হয়। অথবা বাসার ...বিস্তারিত

‘শেষ ব্যক্তি শেষ বুলেট’

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | বৃহস্পতিবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 1297 বার

ঠাস ঠাস, দ্রিম দ্রিম শব্দে কেঁপে উঠে সিলেটের তেলিয়াপাড়া এলাকা। ১৯৭১ সালের ২রা ডিসেম্বর। রাত আনুমানিক ৮টা। হঠাৎ গুলাগুলির শব্দে রাতের নির্জনতা ভেঙ্গে পড়ে। পাক বাহিনী ও তার সহযোগী রাজাকাররা মুক্তিবাহিনীর ক্যাম্পে অতর্কিত আক্রমণ করে। অন্ধকারে একসঙ্গে এক ঝাঁক অস্ত্রের গর্জন। আকস্মিক আক্রমণে মু্ক্তিযোদ্ধারা সবাই অপ্রস্তুত হয়ে পড়ে। শত্রু একেবারে নাগালের মধ্যে চলে এসেছে। পাকিস্তানি সেনাদের ঘেরাওয়ের মধ্যে পড়ে যায় মুক্তিযোদ্ধারা। এতে করে সেখানে এক বিশৃঙ্খল অবস্থায় সৃষ্টি হয়। এরকম ...বিস্তারিত

ঠাস ঠাস, দ্রিম দ্রিম শব্দে কেঁপে উঠে সিলেটের তেলিয়াপাড়া এলাকা। ১৯৭১ সালের ২রা ডিসেম্বর। রাত আনুমানিক ৮টা। হঠাৎ গুলাগুলির শব্দে রাতের নির্জনতা ভেঙ্গে পড়ে। পাক বাহিনী ও তার সহযোগী রাজাকাররা মুক্তিবাহিনীর ক্যাম্পে অতর্কিত আক্রমণ করে। অন্ধকারে একসঙ্গে এক ঝাঁক অস্ত্রের গর্জন। আকস্মিক আক্রমণে মু্ক্তিযোদ্ধারা সবাই অপ্রস্তুত হয়ে পড়ে। শত্রু একেবারে ...বিস্তারিত

ঠাস ঠাস, দ্রিম দ্রিম শব্দে কেঁপে উঠে সিলেটের তেলিয়াপাড়া এলাকা। ১৯৭১ সালের ২রা ডিসেম্বর। রাত আনুমানিক ৮টা। হঠাৎ গুলাগুলির শব্দে ...বিস্তারিত

অকুতোভয় এক বীর যোদ্ধার গল্প

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | সোমবার, ১২ নভেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 850 বার

চারদিকে গোলাগুলির তীব্র শব্দ। বৃষ্টির মত গুলি। সাথে আর্টিলারির ব্যাপক গোলাবর্ষণ। বারুদের গন্ধ, আর্তনাদ আর চিৎকার। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে মুক্তিযোদ্ধারা। রক্তক্ষয়ী বিভৎস এক যুদ্ধ।উত্তেজনাকর অনিশ্চিত এক পরিস্থিতি। এক পর্যায়ে শুরু হয়েছে হাতাহাতি যুদ্ধ, বেয়নেট চার্জ। ইংরেজীতে যাকে বলে “ডু অর ডাই”। “জয় অথবা মৃত্যু”। যে কোন একটি বেছে নিতে হবে। নায়েব সুবেদার শামসুল হকের প্রত্যয়ও তাই। বিজয় অথবা শহীদ। বীর বিক্রমে ঝাঁপিয়ে পড়লেন শত্রু সেনাদের ওপর। হত্যা করতে লাগলেন একের ...বিস্তারিত

চারদিকে গোলাগুলির তীব্র শব্দ। বৃষ্টির মত গুলি। সাথে আর্টিলারির ব্যাপক গোলাবর্ষণ। বারুদের গন্ধ, আর্তনাদ আর চিৎকার। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে মুক্তিযোদ্ধারা। রক্তক্ষয়ী বিভৎস এক যুদ্ধ।উত্তেজনাকর অনিশ্চিত এক পরিস্থিতি। এক পর্যায়ে শুরু হয়েছে হাতাহাতি যুদ্ধ, বেয়নেট চার্জ। ইংরেজীতে যাকে বলে “ডু অর ডাই”। “জয় অথবা মৃত্যু”। যে কোন একটি বেছে নিতে হবে। ...বিস্তারিত

চারদিকে গোলাগুলির তীব্র শব্দ। বৃষ্টির মত গুলি। সাথে আর্টিলারির ব্যাপক গোলাবর্ষণ। বারুদের গন্ধ, আর্তনাদ আর চিৎকার। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে মুক্তিযোদ্ধারা। ...বিস্তারিত

শাহজাহান সিদ্দিকী (বীর বিক্রম)

জোবায়েদ আহাম্মদ মোমেন | বৃহস্পতিবার, ২৩ আগস্ট ২০১৮ | পড়া হয়েছে 1194 বার

১৯৭১। ১৫ই আগস্টের সকাল। আকাশবাণী কলকাতা রেডিওতে বেজে উঠল একটি গান “ আমার পুতুল আজকে যাবে শশুরবাড়ী”। উত্তেজনায় থরথর করে কাঁপছে শাহজাহান সিদ্দিকী। সারা পৃথিবী শুনল আরতি মুখোপাধ্যায়’র গান আর মুক্তিযোদ্ধের নৌ-কমান্ডোরা পেয়ে গেলেন অপারেশনের গ্রীন সিগন্যাল। সেদিনের সূর্য আস্তে আস্তে পশ্চিম আকাশে বিদায় নিল। দ্রুতই প্রস্তুত হন নৌ-কমান্ডোরা; প্রত্যেকেই সঙ্গে নেন একটি স্টেনগান, এক জোড়া ফিঞ্চ, একটি ছুরি আর বুকে বাঁধা ৫ কেজি ওজনের লিমপেট মাইন। এই রাতই শেষ রাত, ...বিস্তারিত

১৯৭১। ১৫ই আগস্টের সকাল। আকাশবাণী কলকাতা রেডিওতে বেজে উঠল একটি গান “ আমার পুতুল আজকে যাবে শশুরবাড়ী”। উত্তেজনায় থরথর করে কাঁপছে শাহজাহান সিদ্দিকী। সারা পৃথিবী শুনল আরতি মুখোপাধ্যায়’র গান আর মুক্তিযোদ্ধের নৌ-কমান্ডোরা পেয়ে গেলেন অপারেশনের গ্রীন সিগন্যাল। সেদিনের সূর্য আস্তে আস্তে পশ্চিম আকাশে বিদায় নিল। দ্রুতই প্রস্তুত হন নৌ-কমান্ডোরা; প্রত্যেকেই সঙ্গে ...বিস্তারিত

১৯৭১। ১৫ই আগস্টের সকাল। আকাশবাণী কলকাতা রেডিওতে বেজে উঠল একটি গান “ আমার পুতুল আজকে যাবে শশুরবাড়ী”। উত্তেজনায় থরথর করে কাঁপছে ...বিস্তারিত

সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার একই পরিবারের ৩ জন নিহত

ডেস্ক রিপোর্ট | সোমবার, ২৯ মে ২০১৭ | পড়া হয়েছে 1432 বার

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার দুর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের গুনানন্দী গ্রামের একই পরিবারের তিনজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন। নিহতদের স্বজনরা জানান, কুমিল্লা সদর উপজেলার কোটবাড়ি মাঝিপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রাজ্জাকের স্ত্রী শাহানারা বেগম নাতি-নাতনি নিয়ে শনিবার রাতে সৌদিতে বসবাসরত মেয়ে শাম্মি আক্তার ও জামাই গুনানন্দী গ্রামের তোফাজ্জলের কাছে যাচ্ছিলেন। উদ্দেশ্য ছিল ওমরা পালন করার। গত রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৬টায় শাশুড়ি ও নিজের সন্তানদের বিমানবন্দর থেকে বাসায় নেয়ার ...বিস্তারিত

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার দুর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের গুনানন্দী গ্রামের একই পরিবারের তিনজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন। নিহতদের স্বজনরা জানান, কুমিল্লা সদর উপজেলার কোটবাড়ি মাঝিপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রাজ্জাকের স্ত্রী শাহানারা বেগম নাতি-নাতনি নিয়ে শনিবার রাতে সৌদিতে বসবাসরত মেয়ে শাম্মি আক্তার ও জামাই গুনানন্দী গ্রামের তোফাজ্জলের কাছে ...বিস্তারিত

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার দুর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের গুনানন্দী গ্রামের একই পরিবারের তিনজন নিহত ও তিনজন আহত ...বিস্তারিত

নবীনগরের সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী মোঃ আনোয়ার হোসেন এর ইন্তেকাল

নিজস্ব প্রতিবেদক | শুক্রবার, ০৩ মার্চ ২০১৭ | পড়া হয়েছে 7770 বার

নবীনগরের খবর।। নবীনগরের চার চার বারের সংসদ সদস্য ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আলহাজ্ব কাজী কাজী মোঃ আনোয়ার হোসেন আজ শুক্রবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে এগারটার দিকে ঢাকার এপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাদিন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস করেন। ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলা.... রাজিউন। মৃত্যুকালে উনার বয়স ছিল ৬৪ বছর। সাবেক এ সাংসদের মৃত্যুতে নবীনগরের রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে আসে। আলহাজ্ব কাজী মোঃ আনোয়ার হোসেন এর অকাল প্রয়াণে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সমুহ, সামাজিক সাংস্কৃতিক ...বিস্তারিত

নবীনগরের খবর।। নবীনগরের চার চার বারের সংসদ সদস্য ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আলহাজ্ব কাজী কাজী মোঃ আনোয়ার হোসেন আজ শুক্রবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে এগারটার দিকে ঢাকার এপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাদিন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস করেন। ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলা.... রাজিউন। মৃত্যুকালে উনার বয়স ছিল ৬৪ বছর। সাবেক এ সাংসদের মৃত্যুতে ...বিস্তারিত

নবীনগরের খবর।। নবীনগরের চার চার বারের সংসদ সদস্য ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আলহাজ্ব কাজী কাজী মোঃ আনোয়ার ...বিস্তারিত

বাংলার মরমী সাধক কবি মনমোহন দত্ত ও তাঁর সূফিসঙ্গীত সাধনা

মুহাম্মদ নূরে আলম বরষণ | সোমবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ | পড়া হয়েছে 3381 বার

মনমোহন দত্ত ছিলেন মলয়া সংগীতের জনক, মরমী সাধক, কবি, প্রবন্ধকার, বাউল, সমাজ সংস্কারক ও অসংখ্য অসাধারণ গানের গীতিকার, সুরকার ও গায়ক। যে সকল সম্মতি প্রথিতযশা কীর্তিমান মহাপুরুষ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জন্ম গ্রহণ করেছেন মরমী সাধক কবি মনোমোহন দত্ত তাদের মধ্যে অন্যতম॥ যাদের হাত ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বাংলাদেশের সংস্কৃতির চারণভুমি এবং সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে পেয়েছে বিশেষ মর্যাদা ॥ মনোমোহন তাঁর লেখা ও সাধন কর্মের মাধ্যমে বঙ্গভূমির সীমা পেরিয়ে বিশ্ব সভায় নিজেকে করেছিলেন সুপ্রতিষ্ঠিত॥ মনোমোহন ছিলেন ...বিস্তারিত

মনমোহন দত্ত ছিলেন মলয়া সংগীতের জনক, মরমী সাধক, কবি, প্রবন্ধকার, বাউল, সমাজ সংস্কারক ও অসংখ্য অসাধারণ গানের গীতিকার, সুরকার ও গায়ক। যে সকল সম্মতি প্রথিতযশা কীর্তিমান মহাপুরুষ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জন্ম গ্রহণ করেছেন মরমী সাধক কবি মনোমোহন দত্ত তাদের মধ্যে অন্যতম॥ যাদের হাত ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বাংলাদেশের সংস্কৃতির চারণভুমি এবং সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে ...বিস্তারিত

মনমোহন দত্ত ছিলেন মলয়া সংগীতের জনক, মরমী সাধক, কবি, প্রবন্ধকার, বাউল, সমাজ সংস্কারক ও অসংখ্য অসাধারণ গানের গীতিকার, সুরকার ও ...বিস্তারিত

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১